শনিবার, মে ৮

ধর্ষণ ও নির্যাতনের বিরুদ্ধে ফেনীতে মৌন প্রতিবাদ

বিশেষ প্রতিনিধিঃ-জাহিদুল আলম রাজু সবাই নিশ্চুপ। হাতে জ্বলছে প্রতিবাদের অগ্নি স্বরূপ চোখে-মুখে ঘৃণা প্রকাশ পাচ্ছে নারী নির্যাতনকারী ও ধর্ষণকারীদের প্রতি। সবার আকাঙ্খা, বন্ধ হোক নারীর প্রতি সহিংসতা। মোমবাতি। (৬ অক্টোবর) বিকালে ফেনীর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে যেখানেই নারী নির্যাতন, সেখানেই প্রতিবাদ-প্রতিরোধের আহ্বান জানিয়ে এভাবে মৌন প্রতিবাদ করেছে ফেনীর ২০টি সামাজিক ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। এতে অংশগ্রহণ করেছে ছোট্ট শিশু হতে শুরু করে ছাত্র, যুবা, কিশোর, কিশোরী ও বয়োজ্যেষ্ঠ নারী। সাথে ছিল হিজড়া সম্প্রদায়ের একটি দল। ফেনীর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে দেখা যায়, জাতীয় পতাকার পানে করুণভাবে চেয়ে আছেন এক নারী। শিশু, কিশোরী ও নারী বিভিন্ন অঙ্গ ভঙ্গিতে প্রকাশ করছে ব্যতিক্রমী প্রতিবাদ। সন্ধ্যায় প্রজ্জ্বলিত মোমবাতি অন্ধকার ঠেলে আলোর আগমনী বার্তা দিচ্ছিল। এতে অংশ নেয়া সামাজিক সংগঠন সহায়ের সমন্বয়ক মঞ্জিলা আক্তার মিমি বলেন, আমরা ধর্ষিতার আকুল আর্তনাদে লজ্জিত ও নিমজ্জিত। শিশু, কিশোরী, তরুণী, বৃদ্ধা, মানসিক ভারসাম্যহীন এমনকি হিজড়ারাও আজ অরক্ষিত। তিনি বলেন, ধর্ষণের জন্য কোনভাবেই নারীর পোষাক দায়ী না, ধর্ষণের জন্য ধর্ষকের মন মানসিকতা দায়ী। অভিযুক্ত সকল ধর্ষকের শাস্তি দাবী করেন তিনি। মৌন প্রতিবাদের আয়োজনকারীদের একজন পিকলু বলেন, আমরা এমন একটা সমাজ ব্যবস্থা চাই যেখানে নারীরা নির্ভয়ে চলাফেরা করতে পারবে। নারীর প্রতি সকল ধরনের সহিংসতা বন্ধে, অবমাননার বিরুদ্ধে আমাদের স্পষ্ট অবস্থান। আর সে অবস্থানের পক্ষ নিয়েই আমাদের এই মৌন প্রতিবাদ করেছি আমরা। ফেনী ফুড এন্ড ব্লাড ব্যাংকিং এর সভাপতি সেজানুল আলম চৌধুরী প্রিয় বলেন প তে – পশু প তে – পুরুষ।প্রতিটা পুরুষের সাথেই একটা পশু বাস করে, পশুত্ব দমিয়ে যে সমাজে চলতে পারে সেই প্রকৃত পুরুষ। ধর্ষণ দিনদিন সামাজিক রাষ্ট্রীয় ব্যাধিতে রুপ নিচ্ছে। সরকার ও সাধারণ জনগণ যদি সম্মিলিত ভাবে না কাজ করে এটা দমন সম্ভব হবে না। ধর্ষণের মূল কারণ মানুষের বিকৃত মস্তিষ্ক। মায়ের গর্ভে জন্ম নেয়া সুসন্তান কখনোই অন্য মায়ের ইজ্জত হরণ করতে পারে না। ধর্ষণের শাস্তি প্রকাশ্যে মৃত্যুদন্ড করা হোক প্রতিবাদে অংশ নেয়া সংগঠনগুলো হল সহায়,ফেনী ফুড এন্ড ব্লাড ব্যাংকিং,রক্ত কণিকা বাংলাদেশ, ফেনী ব্লাড ডোনেট এসোসিয়েশন, আমরা যুবরা চাই পরিবর্তন, ওয়েল ফেয়ার ব্লাড ফাইটার্স, হাজী পাড়া ক্রীড়া চক্র, পরিবর্তন, ছাগলনাইয়া ব্লাড ডোনার্স ক্লাব, নোয়াগাঁও যুব সংগঠন, উত্তর কাশিমপুর স্বপ্নছায়া, নবজীবন রক্তদান ফোরাম, ফ্রেন্ড ইউনিটি ব্লাড ডোনার ক্লাব, গ্রেস হেল্প এইড ক্লাব, ইয়ার নুরুল্লাহপুর, সোনাগাজী ব্লাড ডোনেট অর্গানাইজেশন, কাজীরবাগ ব্লাড ডোনেট ক্লাব এবং তারালিয়া শান্তি সংঘ।

Comments

comments

Powered by Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *